অন্তঃসত্বা ইউপি সদস্যকে ধর্ষণ

অন্তঃসত্বা ইউপি সদস্যকে ধর্ষণ
ছবিঃ সংগৃহীত

রাঙামাটির লংগদু উপজেলায় এক ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যা ধর্ষিত হয়েছেন। উল্লেখ্য, ইউপি সদস্যা পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন।

এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার ঐ নারীর চাচাতো ভাই ঝংকু চাকমাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী ওই ইউপি সদস্য জানান, গত বুধবার তিনি লংগদু থেকে রাঙামাটিতে আসেন। তখন তার চাচাত ভাই ঝংকু চাকমা বাবলু তাকে ফোন করে ‘গুরুত্বপূর্ণ’ কাজের কথা বলে ডেকে নেন। পরে তিনি উপজেলার ছোট কাট্টলি এলাকায় তার রিজার্ভ বাজারের বাসায় যান। সেখানে বাবলু কোমল পানীয়র সঙ্গে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে তা খাইয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করেন।

এ সময় তিনি হাত-পা ধরে মাফ চান। কিন্তু কিছুক্ষণ পরে তিনি ঘুমিয়ে পড়েন। পরদিন (বৃহস্পতিবার) সকালে তিনি ঘুম থেকে উঠে নিজেকে বিবস্ত্র অবস্থায় দেখতে পান। এ সময় বাবলুও তার পাশে ছিলেন। তখন তিনি বুঝতে পারেন, রাতে তাকে কয়েকবার ধর্ষণ করা হয়।

পরে তিনি পরিবারের সঙ্গে কথা বলে গতকাল শুক্রবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

রাঙামাটির কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহিদুল হক রনি জানান, মামলা দায়েরের পর ঝংকু চাকমা বাবলুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাবলু ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। শুক্রবার আদালতের নির্দেশে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। ইউপি সদস্যকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আরোও পড়ুনঃ কাঁকর মেশানো রসগোল্লা দেব, কামড় দিলেই দাঁত ভেঙে যাবেঃ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Leave a Reply

১টি মন্তব্য

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার মন্তব্য লিখুন
এখানে আপনার নাম লিখুন